‘ব্লু হোয়েল’ খেলে কিশোরের আত্মহত্যা!

‘ব্লু হোয়েল’ এর অ্যাডমিন রুশ কিশোরী গ্রেফতার

আল আমিন রাজু, ঢাকাঃ

ভিডিও গেম ‘ ব্লু হোয়েল আসক্তিতে’ আত্মহত্যা করেছে আরেক কিশোর। ভারতের মধ্যপ্রদেশ রাজ্যের দামোহায় সাত্বিক পান্ডে নামে একাদশ শ্রেণির ওই স্কুলছাত্র চলন্ত ট্রেনের সামনে ঝাঁপ দিয়ে আত্মঘাতী হয় বলে জানা গেছে।

দেশটির সংবাদসংস্থা এএনআই জানিয়েছে, এই ভিডিও গেমের নেশায় ভারতে কয়েকজন কিশোরের মৃত্যু হয়েছে ভারতে।

নিহত কিশোরের বন্ধুদের বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থাটি আরো জানায়, কদিন আগে থেকেই মোবাইলে ব্লু হোয়েল খেলতে শুরু করে সাত্বিক। এরপর থেকেই বদলে যায় সে। বন্ধুদেরও বলেছিল ওই ভয়ংকর গেমে অংশ নিতে।

এদিকে, কিশোরের পরিবারের দাবি, সে ব্লু হোয়েল নিয়ে বাড়িতে কোনো কথাই বলেনি। এছাড়া তার আচরণেও কোনো অসঙ্গতি দেখা যায়নি বলেও দাবি করেছে পরিবার।

এর আগেও ভারতে এই গেমের আসক্তিতে একাধিক কিশোর আত্মহত্যা করেছিল। তামিলনাড়ু রাজ্যে বিগনেশ নামে এক তরুণ গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছিল। মৃত্যুর আগে বিগনেশ লিখে গিয়েছিল, ‘নীল তিমি কোনো খেলা নয়। যদি তুমি সেখানে একবার ঢোকো, তাহলে বের হতে পারবে না।’

পুলিশ বলছে, ‘দ্য ব্লু হুয়াল চ্যালেঞ্জ’ গেমে মাত্রাতিরিক্ত আসক্তির ফলে বিগনেশ আত্মহত্যা করে থাকতে পারেন।

পুলিশ আরো বলেছে, বিগনেশের বাঁ হাতে একটি তিমির ছবি আঁকা ছিল। এর নিচে লেখা ছিল ‘ব্লু হুয়াল’ বা ‘নীল তিমি’। যিনি এই খেলা খেলবেন, তাঁর কাজ হচ্ছে ৫০ দিনে ৫০টি কাজ শেষ করা। আর সেই কাজগুলো হলো মূলত আত্মহত্যা করা।

বিগনেশ একটি বেসরকারি কলেজে ব্যবসায় বিভাগে দ্বিতীয় বর্ষে পড়তেন।

এনডিটিভির খবরে বলা হয়, গেম খেলায় আসক্ত হয়ে রাজ্যে এটাই প্রথম মৃত্যু হলেও ভারতের অন্যান্য রাজ্যে এ রকম অসংখ্য আত্মহত্যার ঘটনা ঘটেছে। এই গেমে প্ররোচিত হয়ে আত্মঘাতী হওয়াকে ভীতি হিসেবে দেখা হচ্ছে এবং এটা নিয়ে পুরো ভারত উদ্বিগ্ন। ‘দ্য ব্লু হুয়াল চ্যালেঞ্জ’ গেমে আসক্ত হয়ে আত্মহত্যার অভিযোগ উঠলে অনেক রাজ্য এই গেমকে নিষিদ্ধ করেছে।

কর্তৃপক্ষ বলছে, এ ধরনের সমস্যা এড়াতে সন্তানরা অনলাইনে কী করছে, সেদিকে বাবা-মাকে গভীর মনোযোগ দিতে হবে।

রাশিয়ায় তৈরি ‘দ্য ব্লু হুয়াল চ্যালেঞ্জ’ গেমে আসক্ত হয়ে সারা বিশ্বে ১০০-এর মতো মানুষ আত্মহত্যা করেছে বলেও এনডিটিভির খবরে বলা হয়।

আরও পড়ুনঃ ‘ব্লু হোয়েল’ এর অ্যাডমিন রুশ কিশোরী গ্রেফতার

Login

Welcome! Login in to your account

Remember me Lost your password?

Lost Password