জনপ্রিয় জারবেরা ফুল

মোহাম্মদ নূর আলম গন্ধী:

জারবেরা একটি গুরত্বপূর্ণ ও জনপ্রিয় বাণিজ্যিক ফুল। জার্মান পরিবেশবিদ ট্রগোট জার্বার নামানুসারে এ ফুলটির নামকরন করা হয়েছে। এটি আন্তর্জাতিক ফুল বাণিজ্যে কাট ফ্লাওয়ার হিসেবে উল্লেখযোগ্য ১০টি ফুলের মাঝে অন্যতম ফুল। কাট ফ্লাওয়ারের হিসেবে ও দীর্ঘ্য দিন ফুলদানীতে সতেজ থাকে বলে জারবেরার জুড়ি নেই। জারবেরা গণের আওতায় ৪০টির মত প্রজাতি রয়েছে। রয়েছে নানান রঙের ফুলও।

এগুলোর মধ্যে জারবেরা জ্যামেসোনি প্রজাতিটি চাষাবাদ হচ্ছে সংকরায়ন পদ্ধতির মাধ্যমে। বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট এতিমধ্যে জারবেরার বারি জারবেরা-১ ও বারি জারবেরা-২ নামে দু’টি জাত উদ্ভাবন করেছে। জারবেরা বহু বর্ষজীবী দ্রুত বর্ধশীল উদ্ভিদ। গাছ কান্ডহীন ,পাতার রং গাঢ় সবুজ এবং পাতার কিনারা খাঁজ কাটা থাকে। গাছ বেশ কষ্ট সহিষ্ণু। রৌদ্র উজ্জল সুনিস্কাশিত উর্বর জৈব পদার্থ সমৃদ্ধ দো-আঁশ থেকে বেলে দো-আঁশ মাটি জারবেরা চাষের জন্য উত্তম।

জারবেরা মূলত শীতকালীন মৌসুমী ফুল এবং শীত মৌসুমে খোলামাঠে আবাদ করা যায়। অন্য ঋতুতে আবাদের ক্ষেত্রে পলিথিন ছাউনিতে চাষের ব্যবস্থা করতে হবে। তবে শীত ব্যতীত অন্য ঋতুতে কাংখিত মানের ফুল পাওয়া যায়না। শীত মৌসুমে রোপণের জন্য অক্টোবর থেকে নভেম্বর মাস উত্তম সময়। বীজের মাধ্যমে জারবেরার বংশ বিস্তার করা যায়। তবে এতে মাতৃগাছের গুণাগুণ বজায় থাকেনা। এ ছাড়া মাতৃ গাছের ক্লাম্প বিভক্ত করে বংশ বিস্তার করা যায়। তাছাড়া বাণিজ্যিক চাষাবাদের জন্য টিস্যুকালচার পদ্ধতিতে উৎপাদিত চারাই উত্তম। জারবেরা ফুল গাছের চারা জমিতে একবার রোপণ করে তা থেকে সাধারণত পর্যায়ক্রমে ২ বৎসর পর্যন্ত সময় ফুল আহরণ করা যায়।

বাণিজ্যিক চাষাবাদের ক্ষেত্রে জমিতে নিদ্ধিষ্ট দূরত্ব বজায় রেখে ও নালার ব্যবস্থা রেখে চারা রোপণ করতে হবে। এ ক্ষেত্রে সারি থেকে সারি ৫০ সে.মি. এবং চারা থেকে চারার দূরত্ব হবে ৪০ সে.মি.। চারা রোপণের ৮০ থেকে ৯০ দিন পর গাছে ফুল ধরে। বাসা-বাড়ীতে চাষের ক্ষেত্রে বাড়ীর সামনের ফাঁকা জায়গায় বেড তৈরি করে নিতে হবে এবং ছাদের টবেও জারবেরা রোপণ উপযোগী ফুল গাছ। প্রয়োজনে সেচ দিতে হবে এবং পানি নিকাশের ব্যবস্থা রাখতে হবে। গাছের ভাল বৃদ্ধির জন্য সুষম সার ব্যবহার করতে এবং রোগ-পোকার আক্রমণ দেখা দিলে তা দমনের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থ গ্রহণ করতে হবে। জাত ভেদে জারবেরা ফুলের উৎপাদন কম বা বেশী হতে পারে তবে উত্তম ব্যবস্থপনায় বছরে প্রতি গাছ হতে ২০ থেকে ২৫ টি ফুল পাওয়া যায়।

Login

Welcome! Login in to your account

Remember me Lost your password?

Lost Password