বিস্ময়কর রংধনু পাহাড়

বিস্ময়কর রংধনু পাহাড়

অনিরুদ্ধ সাজ্জাদঃ

প্রকৃতির আশ্চর্য এক বিস্ময়কর  সৃষ্টি রেইনবো মাউন্টেইন অথবা রংধনু পাহাড়। এটি চীনের উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলীয় গানসু প্রদেশে অবস্থিত । জাতিসংঘ  ২০০৯ সালে চীনের এই অনন্য দৃষ্টিনন্দন পাহাড় সারিকে ওয়ার্ল্ড হেরিটেজ সাইট  এ অন্তর্ভুক্ত করে ।

সাধারণত পাহাড় বলতে আমরা সবুজ গাছপালা ঘেরা পাহাড়ি এলাকাই বুঝি । তবে মাটির অভ্যন্তরীণ গঠনে ভিন্নতার কারণে অনন্য চীনের রেইনবো মাউন্টেইন এর পাহাড়গুলো বিভিন্ন রং এ রঙিন । প্রায় ২০০ বর্গ মাইল এলাকা জুড়ে বিস্তৃত চীনের ঝাংহিয়ে ডানসিয়া ল্যান্ডফর্ম জিওলজিক্যাল পার্ক জুড়ে রয়েছে রঙিন এই পাহাড় সারি । এই রঙিন পাহাড় সৃষ্টির ইতিহাসটা অন্তত ৪০ থেকে ৫০ মিলিয়ন বছর পুরনো যখন চীনের হিমালয় পর্বতমালা সৃষ্টি হয়নি ।

পৃথিবীর ভূপৃষ্ঠ সাধারণত ক্রাস্ট, মেন্টল ও কোর তিনটি প্রধান স্তরের সমন্বয়ে গঠিত ।আয়রন, অক্সিজেন, সিলিকন, ম্যাগনেশিয়াম, সালফার, নিকেল, ক্যালসিয়াম, অ্যালুমিনিয়ামসহ অন্যান্য উপাদানে তৈরি ক্রাস্ট এর খোলস । এই খোলস আবার অসংখ্য টেকটনিক প্লেটে বিভক্ত । কোটি কোটি বছর ধরে জমাট বেঁধে থাকা এই প্লেটগুলো একের পর এক স্তরে স্তরে সাজানো রয়েছে । সর্বদা চলমান এই প্লেটগুলো যখন একটি আর একটির উপর চাপ দেয় তখন সৃষ্টি হয় ভূমিকম্প ।

অন্যদিকে ক্রাস্টের নিচের মেন্টল স্তরটি প্রায় পুরোটাই ম্যাগনেসিয়াম এবং আয়রন সম্মৃদ্ধ সিলিকেট রক । প্রচণ্ড গরমের ফলে সৃষ্ট এ রক তপ্ত তরল লাভা অবস্থায় প্লেটের নিচে চলমান থাকে । প্লেটগুলোতে পরস্পর ধাক্কা লাগলে এগুলো জ্বলন্ত লাভা আকারে মাটি ফুঁড়ে বেরিয়ে এসে সৃষ্টি হয় পাহাড় পর্বত । এই লাভা মিনারেল এ পরিবর্তিত হয়ে  বেলেপাথর ও পলি মাটির সাথে মিশে গিয়ে পাহাড়ের গায়ে বিভিন্ন রং সৃষ্টি করে ।

যেমন মিনারেলের আয়রন অক্সাইড (Fe₂O₃) বেলেপাথরের সাথে মিশে যায় তবে তা পাহাড়ের গায়ে লাল রং এর সৃষ্টি করে । আবার অক্সিডাইজড লিমোনাইট  বা জিয়োথাইট  FeO(OH)·nH2O পাহাড়ের বেলেপাথরের বাদামী কিংবা ধাতব হলুদ বর্ণের সৃষ্টি করবে । ক্লোরাইট বা সিলিকেট সমৃদ্ধ ক্লে মিনারেল বেলেপাথরে সবুজ রং এর সৃষ্টি করতে পারে । গবেষকেরা এই ধরনের কিছু উদাহরণের মাধ্যমেই পাহাড়ের বিভিন্ন রং এ রঙিন হওয়ার কারণ বর্ণনা করেন ।

সুত্রঃ ইন্টারনেট

Login

Welcome! Login in to your account

Remember me Lost your password?

Lost Password