আজ মুক্ত হয় কুষ্টিয়া!

ওয়াসিম আকরাম শিশির, কুষ্টিয়া:

আজ (১১ ডিসেম্বর) কুষ্টিয়া মুক্ত দিবস। মুক্তিযুদ্ধে ৮নং সেক্টরের অধীনে দেশের চূড়ান্ত বিজয় অর্জনের পাঁচ দিন আগেই কুষ্টিয়ায় উড়েছিল স্বাধীনতার বিজয় নিশান। ১৯৭১ সালের ১১ ডিসেম্বর কুষ্টিয়া জেলাকে শত্রুমুক্ত করেন বীর মুক্তিযোদ্ধারা। সেদিন স্বজনের লাশ আর বিভীষিকাময় আর্তনাদ সবকিছু ম্লান করে বিজয়ের আনন্দে মানুষ রাস্তায় নেমে উল্লাস করেছিল।

১৯৭১ সালের ৩০ মার্চ রাতেই পাক হানাদারদের আক্রমণের শিকার হয় কুষ্টিয়া। ১ এপ্রিল রাতে পাকসেনা কুষ্টিয়া ছেড়ে পালিয়ে গেলেও দফায় দফায় বিমান হামলা চালিয়ে ১৬ দিন পর আবারও দখল করে নেয় কুষ্টিয়া।

যুদ্ধকালে ৪৪টি যুদ্ধক্ষেত্রে ছোট বড় মিলিয়ে ৩৩টি যুদ্ধ সংগঠিত হয়। এসময় শতাধিক মুক্তিযোদ্ধার পাশাপাশি প্রায় ৫০ হাজার মানুষ গণহত্যার শিকার হয়।

একদিকে বিজয়ের আনন্দ অন্যদিকে স্বজনের লাশ আর বিভীষিকাময় আর্তনাদ সবকিছু ম্লান করে বিজয়ের আনন্দে কুষ্টিয়ার মানুষ ১১ ডিসেম্বর রাস্তায় নেমে উল্লাস করেছিল।

তবে স্বাধীনতার ৪৬ বছর পরেও গেজেটের সাথে মিল না রেখে মুক্তিযোদ্ধাদের নতুন তালিকার সমালোচনা করাসহ নতুন তালিকাকে মুক্তিযোদ্ধাদের অসম্মান ও প্রহসন বলে মনে করেন মুক্তিযোদ্ধা নাসিম উদ্দিন আহমেদ।

মুক্তিযোদ্ধাদের সঠিক তালিকা জাতির সামনে উত্থাপনের পাশপাশি মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস ও স্মৃতি স্থানগুলো সংরক্ষণ ও নতুন প্রজন্মের কাছে সঠিকভাবে উপস্থাপনের দাবি জানিয়েছেন কুষ্টিয়াবাসী।

Login

Welcome! Login in to your account

Remember me Lost your password?

Lost Password